logo Bangladesh Agricultural University (BAU)
বাকৃবিতে মাছের রোগ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত’

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (ময়মনসিংহ) এপ্রিল - ০৭ ঃ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে আর্থ-সামাজিক ভাবে গুরুত্বপূর্ণ মাছের দুটি প্রধান রোগ(কার্পের ছত্রাক ঘটিত পচন রোগ এবং চিংড়ির ভাইরাস ঘটিত সাদা দাগ রোগ) প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে ভবিষ্যতে এশিয়ান অঞ্চলের দারিদ্র বিমোচন বিষয়ক দিনব্যাপী এক কর্মশালা গত (০৭ এপ্রিল ২০১৯) রবিবার বিশ^বিদ্যালয়ের সৈয়দ নজরুল ইসলাম সম্মেলন ভবনে অনুষ্ঠিত হয়।
কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ^বিদ্যালয়ের প্রো ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ জসিম উদ্দিন খান।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রকল্পের প্রিন্সিপাল ইনভেস্টিগেটর প্রফেসর ড. এম.এ. সালাম এবং ধন্যবাদসূচক বক্তব্য রাখেন প্রফেসর ড. এম. মাহফুজুল হক।
মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. গিয়াস উদ্দিন আহমদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন যথাক্রমে বাকৃবির সাবেক ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ আনোয়ারুর ইসলাম, ভারতের আইসিএআর সেন্ট্রাল ইনস্টিটিউট অব ব্রাকিশওয়াটার অ্যাকুয়াকালচার, চেন্নাই- এর পরিচালক ড. কে.কে বিজয়ান, বাংলাদেশ মাৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট এর পরিচালক নূরুলউল্লাহ এবং বাউরেস এর সহযোগী পরিচালক প্রফেসর ড. মোঃ আলমগীর হোসেন।
অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন যুক্তরাজ্যের সাউথাস্পটন বিশ^বিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. ক্রিস্টোফার হাউটন।
কর্মশালায় বক্তারা বলেন, মাছ চাষের বাধাগুলির মধ্যে অন্যতম রোগ এবং এই সমস্যা মাছ চাষীদের অর্থনৈতিক সাফল্যের পথে বড় বাধা। মাছ চাষের ব্যাপক বিস্তারের ফলে প্যাথোজেন দ্বারা মাছ চাষ মারাক্তক হুমকির মুখোমুখি হচ্ছে ফলে মাছের বৃদ্ধি ও উৎপাদন মারাতœক ভাবে হ্রাস পাচ্ছে। তা ছাড়া, মাছের পুকুরে মুরগির বিষ্ঠা সার হিসেবে ব্যবহারের ফলে মুরগির খাদ্যে ব্যবহৃত এন্টিবায়োটিক মাছের খাদ্য চক্রে অনুপ্রবেশ ঘটেঠে যা পরিশেষে মাছের শরীরে জমা হয়। এই সমস্ত এন্টিবায়োটিক সহয়ে ধ্বংস হয়না, এগুলি মাছে শরীরে পুঞ্জিভুত হয়ে পরে মানুষের শরীরে প্রবেশ করে মানুষের স্বাস্থহানি ঘটাকে পারে।
উল্লেখ্য, প্রকল্পটি বাংলাদেশ ও ভারতে মাছ এবং চিংড়ি চাষকে কিভাবে পরিবেশ বান্ধব ও রোগের ঝুকি নিয়ন্ত্রনে সহায়তা করা যায়া সে বিষয়ে কাজ করছে। কর্মশালায় ময়মনসিংহ এবং রাজশাহী অঞ্চলের খামারি এবং মাৎস্যচাষিরা অংশগ্রহণ করেন।

Publish Date :  08 Apr, 2019