logo Bangladesh Agricultural University (BAU)
করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজকে ফেস শিল্ড দিল বাকৃবি

 

করোনা মোকাবিলায় সামনের সারি থেকে লড়াইকারী চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীসহ, আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও গণমাধ্যমকর্মীদের অধিকতর সুরক্ষায় বাকৃবি’র ফ্যাব ল্যাবে তৈরি করা হয়েছে এই আচ্ছাদন বা ফেস শিল্ড।
দেশব্যাপী  মানবদেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ডাক্তার নার্সদেরসহ প্রত্যক্ষভাবে কাজ করা লোকজনদের মাঝে  মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ায় তাদের সুরক্ষার জন্য বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) নিজস্ব মেশিনে তৈরী ৫০টি ফেস শিল্ড ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে  হস্তান্তর করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার(৩০ এপ্রিল ২০২০) ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে এক সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানে এগুলো  হস্তান্তর করা হয়।
.
বাকৃবির উপাচার্য প্রফেসর ড. লুৎফুল হাসান  জানান, বাকৃবির নিজস্ব ফ্যাব ল্যাবে উৎপাদিত প্রোটোটাইপ ফেইস শিল্ড করোনা সংকটে স্বাস্থ্যকর্মীসহ অন্যান্য সামনের কাতারে থাকা যোদ্ধাদের সুরক্ষা নিশ্চিত করবে। বিনামূল্যে প্রথম দিকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ ও বাকৃবি’র হেলথ সেন্টারের চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষায় প্রদান করা হবে এবং পর্যায়ক্রমে আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও গণমাধ্যমকর্মীদেরও সরবরাহ করা হবে জানান তিনি।  
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য  ড.লুৎফুল হাসান বলেন, দেশের এই ক্রান্তিকালে করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ প্রক্রিয়াকে আরও জোরদার করার লক্ষ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয় নানা উদ্যোগ নিলে বাকৃবিও এতে অংশ নেয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে দেশের এ ক্রান্তিকালে করোনাভাইরাস শনাক্তকরণের জন্য জনবলসহ রিয়েল টাইম (আরটি) পিসিআর মেশিনটি ও আনুষঙ্গিক যন্ত্রাংশ  ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে হস্তান্তর করা হয়েছে।
উপাচার্য  আরও বলেন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে ল্যাব স্থাপনে শুরু থেকেই আমরা টেকনিক্যাল সাপোর্ট দিয়ে আসছি। আমাদের একাধিক অধ্যাপক সেখানে দিন রাত সময় দিয়েছেন।


ফেস শিল্ট হস্তান্তর অনুষ্ঠানে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ  অধ্যাপক ডাঃ চিত্ত রঞ্জন দেবনাথ, বিএমএ ময়মনসিংহ জেলার নেতৃবৃন্দ ,বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের   রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ ছাইফুল ইসলাম, ফ্যাব ল্যাবের টেকনিশিয়ান নাজমুল হুদা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


বাকৃবি’র ফ্যাব ল্যাবের টেকনিশিয়ান নাজমুল হুদা জানান, ফেস শিল্ড তৈরি করতে বাইরে থেকে আমদানি করা এক্সিলিক শিট ও ফ্লেক্সিশিড ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তিনি আরও জানান, কম্পিউটারে ডিজাইন করে এক্সিলিট শিট লেজার কাটার দিয়ে নেয়ার পর ফ্লেক্সিশিট লাগিয়ে ফেস শিল্ড তৈরি করা হয়ে থাকে। ফ্যাব ল্যাবে প্রতিদিন গড়ে ৫০ থেকে ৬০টি ফেস শিল্ড তৈরি করা সম্ভব জানান তিনি।

বাকৃবি করোনাভাইরাস মোকাবিলায় গঠিত টাস্ক ফোর্স এর সভাপতি ও প্রো ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ জসিমউদ্দীন খান বলেন
করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতে আন্তর্জাতিক অঙ্গণে পিপিই, মাস্ক এর সাথে ফেস শিল্ড ব্যবহার হচ্ছে। সে প্রেক্ষিতে বাকৃবি উপাচার্যের নির্দেশনায় ফ্যাব ল্যাবে ফেস শিল্ড তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।  তিনি আরও জানান, ফেস শিল্ড সম্পূর্ণভাবেই স্বাস্থ্য সম্মত,এটি ব্যবহারের ফলে মুখমণ্ডলকে করোনা সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা দেবে। করোনা যুদ্ধে যারা সামনের কাতারে থেকে দায়িত্ব পালন করছেন পিপিই এবং মাস্কের সাথে তাদের এটি ব্যবহার খুবই জরুরি।


বাকৃবি করোনাভাইরাস মোকাবিলায় গঠিত টাস্ক ফোর্স এর অন্যতম সদস্য ও বোটানিক্যাল গার্ডেনের কিউরেটর প্রফেসর ড. একেএম জাকির হোসেন বলেন আজ ৩০ এপ্রিল ২০২০ থেকে
 ফসল নির্বাচন, উৎপাদন কলাকৌশল, রোগবালাই, পোকামাকড় দমনসহ ফসল সংক্রান্ত সার্বিক বিষয়ে বাকৃবির ২৪ ঘন্টা  টেলিসেবা ও ই-কৃষি সেবা  চালু হয়েছে। তিনি আরও জানান জনসাধারনের ফসল উৎপাদনক্ষম জায়গার সর্বোচ্চ ব্যবহার করে সময়োপযোগী ফসল নির্বাচন, উৎপাদন কলাকৌশল, রোগবালাই, পোকামাকড় দমনসহ সার্বিক বিষয়ে টেলিসেবা প্রদানে বাংলাদেশের কৃষি সংক্রান্ত সকল সরকারি -বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদালয়ের শিক্ষক ও গবেষকদের সমন্বয়ে সার্বক্ষনিক টেলিসেবা ও ই-কৃষি সেবা প্রদান চালু করা হয়েছে। বাংলাদেশের যেকোন অঞ্চল থেকে ফসল উৎপাদন সংক্রান্ত যেকোন পরামর্শ পেতে আগ্রহী সকলকে প্রচারিত হটলাইন নম্বরসমূহে যোগাযোগ করার জন্য আহবান করা হয়েছে।

Publish Date :  30 Apr, 2020